23 C
Dhaka
Thursday, December 8, 2022

যেকারনে ফেইসবুকে সব ধরনের নিউজ শেয়ারিং বন্ধ হয়ে গিয়েছে অস্ট্রেলিয়াতে

- Advertisement -

একবিংশ শতাব্দীর সবচেয়ে বড় বাস্তবতা হচ্ছে কয়েকটি টেক জায়ান্টের উপর মানব সভ্যতা অতিমাত্রায় নির্ভরশীল হয়ে পরেছে। যার মধ্যে ফেইসবুক গুগলকে অনায়সেই রাখা যায়। আজ থেকে পাঁচ বছর আগেও এই টেক কোম্পানি গুলো সব জায়গাতে অন্যরকম স্বাধীনতা ভোগ করে এসেছে। কিন্তু যতই দিন যাচ্ছে এদের প্রভাব প্রতিপত্তি বাড়ছে অন্যদিকে কমবেশি সব দেশের সরকার এদের লাগাম টেনে ধরার চেষ্টা করে যাচ্ছে। এরই ধারাবাহিকতায় অস্ট্রেলিয়ার ফেইসবুক কর্তৃপক্ষ খুবই অনাকাঙ্ক্ষিত পদক্ষেপ নিয়েছে যার বিস্তারিত নিয়েই আজকের আর্টিকেল-

আপনারা যারা বহিবিশ্বের খবরাখবর রাখেন তাঁরা নিশ্চয়ই বেশ কয়েকদিন আগে এমন একটি সংবাদ শুনেছেন যেখান অস্ট্রেলিয়াতে গুগল তাঁদের সার্চ ইঞ্জিন বন্ধ রাখার ব্যাপারে হুমকি দিয়েছিল। সেই বির্তকে নতুন মাত্রা সংযোজিত হয়েছে ফেইসবুকের মাধ্যমে। ফেইসবুক এমন একটি স্টেপ নিয়েছে যা একদমই নতুন হোক সেটা ফেইসবুক নিজের জন্য অথবা  অনলাইন স্পেফিয়ারের জন্য। যার কারণে ফেইসবুকর এই পদক্ষেপ অনেকেই অবাক করে দিয়েছে এবং এটি এখন টক অফ দ্য টাউনে পরিণত হয়েছে।

- Advertisement -

এখন থেকে অস্ট্রেলিয়ার কোনো নিউজ মিডিয়া তাঁদের ফেইসবুকের পেইজের মাধ্যমে কোনো ধরনের লিঙ্ক বা পোস্ট শেয়ার করতে পারবে না। শুধু এত টুকুতে সীমাবদ্ধ হলেও হত কিন্তু এইখানেই শেষ না। অস্ট্রেলিয়াতের বসবাসকারী কেউ অস্ট্রেলিয়ান ডোমেইনের কোনো নিউজ ও ফেইসবুকে শেয়ার দিতে পারবে না। যার কারণে ইন্টারন্যাশলার ইউজার যারা অস্ট্রেলিয়ান নিউজ ফেইসবুকের মাধ্যমে পেত তাঁরাও এখন থেকে পাবে না আবার ডিরেক্ট অস্ট্রেলিয়ান ডোমেইনের কোনো নিউজও ফেইসবুকে শেয়ার দিতে পারবে না ইন্টারন্যাশলার ইউজাররা। সবচেয়ে অদ্ভুত ব্যাপার হচ্ছে অস্ট্রেলিয়ান ইউজাররা এই নিষেধাজ্ঞার কারণে সব ধরনের ইন্টারন্যাশনাল নিউজ কন্টেন্টও ফেইসবুকে পাবে না। এবং ট্রাভেলিং এর সময়ও এটি বহাল থাকবে।

তো হঠাত এমন হঠাৎ কঠিন পদক্ষেপের কারণ কি? অস্ট্রেলিয়ান পার্লামেন্টে  News Media and Digital Platforms Mandatory Bargaining Code নামে একটি বিল উত্তাপিত হয়েছে যেটা আসলে ফেইসবুক এবং গুগলকে বাধ্য করবে নিউজ পাবলিশারদের টাকা দিতে বাধ্য করবে যা তাঁরা তাঁদের সাইটে নিউজ কন্টেন্ট হোস্ট করে থাকে। অনেকদিন ধরেই পাবলিশাররা অভিযোগ করে আসছিল যে, অনলাইনের কারনে অনেক ব্যবসায়িক ক্ষতির সম্মুখিন হতে হচ্ছে। শুধুমাত্র ফেইসবুক এবং গুগলের জন্য আপাতত এটি প্রযোজ্য হবে যদি বিল পাস হয় যায়। প্রথমদিকে গুগল প্রতিবাদ করে সার্চ ইঞ্জিন বন্ধ রাখার ব্যাপারে ইঙ্গিত দিলেও পরে তাঁরা প্রফিট শেয়ার করতে রাজি হয় এবং কিভাবে শেয়ার করা হবে তা নিয়ে আলোচনায় বসেছে নিউজ মিডিয়াগুলোর সাথে।

ইতিমধ্যে ফেইসবুক অস্ট্রেলিয়ান নিউজ পাবলিশারদের পেইজে সব ধরনের কন্টেন্ট হাইড করে দিয়েছে। এবং অস্ট্রেলিয়ান ডোমেইনের কোনো লিঙ্ক ইন্টারন্যাশনালি কেউ শেয়ার করতে পারছে না।

- Advertisement -

যদিও বিলটি এখনও পাস হয়নি তারপরও ফেইসবুকের এমন আগ বাড়িয়ে পদক্ষেপের তীব্র সমালোচনা করেছে সে দেশের প্রধানমন্ত্রী স্কট মরিসন। তাঁরা ভাষায় এটি “unfriend” ও “disappointing” এবং যা তাঁদেরকে আইনটি পাশ করতে আরো বেশি দৃঢ় প্রতিজ্ঞবদ্ধ করবে জানিয়েছে। ফেইসবুকের তরফ থেকে জানানো হয়েছে যেহেতু কিভাবে এটি বাস্তাবায়িত হবে তার বিস্তারিত জানানো হয় নাই তাই তাঁরা আগেই থেকেই আইনের প্রতি শ্রদ্ধাশীল হয়ে এই বৃহত্তর পদক্ষেপ নিয়েছে।

বিস্তারিতঃ এইখানে

- Advertisement -

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here